শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নির্বাচন কমিশন থেকে একজনই যেভাবে ১০টি এনআইডি পেল বঙ্গোপসাগরে বিমান ঘাঁটির বিনিময়ে সহজে ক্ষমতায় ফেরার প্রস্তাব দিয়েছিলেন এক শ্বেতাঙ্গ: প্রধানমন্ত্রী প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ যখন বাংলাদেশে পৌঁছতে পারে রাইসিকে শেষ বিদায় জানাতে ইরানে হাজারো মানুষের ঢল আ’লীগের দীর্ঘমেয়াদে ক্ষমতা ভোগের স্বপ্ন কখনোই পূরণ হবে না : মির্জা ফখরুল কলকাতায় আজীম হত্যা : যা জানালেন বন্ধু গোপাল বিশ্বাস যুক্তরাষ্ট্রের লাগাম টেনে ধরেছেন রিশাদ সাবেক আইজিপি বেনজীরের সম্পত্তি জব্দের নির্দেশ গ্রেপ্তার হলেন অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির ভাই রাইসির মৃত্যুতে রাষ্ট্রীয় শোক পালন করছে বাংলাদেশ
শুধু গরমে নয়, আয়রনের ঘাটতিতেও হয় প্রচণ্ড দুর্বলতা ও হার্ট ফেইলিওর

শুধু গরমে নয়, আয়রনের ঘাটতিতেও হয় প্রচণ্ড দুর্বলতা ও হার্ট ফেইলিওর

স্বদেশ ডেস্ক:   

এই গরমে সুস্থ থাকাটাই এখন চ্যালেঞ্জের। এ সময় অনেকেই শারীরিক বিভিন্ন সমস্যায় বিশেষ করে দূর্বলতা, ক্লান্তি ও মাথা ঘোরার মতো লক্ষণে ভুগছেন। শুধু গরমের কারণে নয়, শরীরে আয়রনের অভাবে ক্লান্তি, দুর্বলতা, মাথা ঘোরা ও শ্বাসকষ্টের মতো সমস্যা দেখা দেয়। এমনকি আয়রনের অভাবে হার্ট ফেইলিওর হতে পারে।

আয়রনকে শরীরের প্রতিরক্ষামূলক ঢাল হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এটি শক্তি দেয় ও শরীরকে অনেক রোগ থেকে রক্ষা করে। আয়রন হিমোগ্লোবিনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ, যা লোহিত রক্তকণিকায় পাওয়া যায়। হিমোগ্লোবিনের কাজ হলো ফুসফুস থেকে অন্য অঙ্গে অক্সিজেন পরিবহন করা। কাজেই, আয়রনের ঘাটতি হলে পুরো ব্যবস্থাই নড়ে যায়।

যেহেতু আয়রন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, তাই এর ঘাটতি অনেক রোগের কারণ হয়। এটি মস্তিষ্ক ও স্নায়ুতন্ত্রের জন্যও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

শরীরে কম আয়রনের কারণে ক্লান্তি সবচেয়ে সাধারণ উপসর্গ। শরীরের বিভিন্ন অংশে অপর্যাপ্ত পরিমাণ অক্সিজেন পৌঁছানোর কারণে ক্লান্তি অনুভূত হয়। এতে দুর্বলতা ও মাথা ঘোরার মতো সমস্যা হতে পারে।

শরীরে আয়রনের ঘাটতি হলে হিমোগ্লোবিন কমে যায়। এমন পরিস্থিতিতে পর্যাপ্ত অক্সিজেনের অভাব হয়, যে কারণে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। ব্যায়াম, হাঁটা বা দৌড়ানোর সময় এই সমস্যা বাড়ে।

আয়রন শুধু শারীরিক স্বাস্থ্য নয় মানসিক স্বাস্থ্যকেও প্রভাবিত করতে পারে। এর অভাবে মাথাব্যথার সমস্যা হতে পারে। অনেক সময় আয়রনের ঘাটতির কারণে মনোযোগ ও স্মৃতিশক্তি কমে যেতে পারে, কারণ এমন পরিস্থিতিতে মস্তিষ্ক পর্যাপ্ত পরিমাণে অক্সিজেন পায় না।

সেরোটোনিন ও ডোপামিন উভয়ই শরীর ও মস্তিষ্ককে শিথিল রাখার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হরমোন। আয়রনের মাত্রা কম হলে শরীরে এই দুটি হরমোনের ভারসাম্য বিঘ্নিত হয়। যার সরাসরি প্রভাব পড়ে ঘুমের ওপর। ফলে অনেক সমস্যা হতে পারে।

হাত পা প্রায়ই ঠাণ্ডা থাকলে সতর্ক থাকুন, কারণ এটি আয়রনের ঘাটতির লক্ষণও হতে পারে। আয়রনের ঘাটতির কারণে যখন শরীরে অক্সিজেন ঠিকমতো পৌঁছায় না, তখন এ ধরনের সমস্যা দেখা যায়।

সূত্র: এবিপি নিউজ

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2019 shawdeshnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
themebashawdesh4547877