রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন

রিফাত হত্যার আসামিরা যেন দেশ ছাড়তে না পারে : হাইকোর্ট

রিফাত হত্যার আসামিরা যেন দেশ ছাড়তে না পারে : হাইকোর্ট

স্বদেশ ডেস্ক: বরগুনায় প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে (২৫) কুপিয়ে হত্যার আসামিরা যাতে দেশ ছেড়ে পালাতে না পারে, সেজন্য সীমান্তে সতর্কতা জারি করতে বলেছেন হাইকোর্ট।

গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা শহরের কলেজ রোড এলাকায় বুড়িরচর ইউনিয়নের বড় লবণগোলা গ্রামের দুলাল শরীফের ছেলে রিফাতকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করে একদল যুবক। এ সময় তার স্ত্রী বাধা দিয়েও তাদের ঠেকাতে পারেননি।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল ওই ঘটনা নিয়ে প্রকাশিতআমাদের সময়সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদন বৃহস্পতিবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কামরুল কাদেরের বেঞ্চের নজরে আনেন।

আদালত তখন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ বি এম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশারকে বরগুনার জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও পুলিশ সুপারের (এসপি) সঙ্গে যোগাযোগ করে এ পর্যন্ত কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তা দুপুর ২টার মধ্যে জানাতে নির্দেশ দেন।

এর ধারাবাহিকতায় দুপুরে আবদুল্লাহ আল মাহমুদ আদালতকে বলেন, ‘আপনাদের (আদালতের) আদেশের পর বরগুনার ডিসি, এসপি ও সদর থানার ওসির সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা জানিয়েছেন, ওই ঘটনায় ভিকটিমের বাবা আজ ১২ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। এর মধ্যে চার নম্বর আসামিকে তারা গ্রেপ্তার করেছেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এখনো মাঠে আছেন।’

তখন আদালত বলেন, ‘একটি কলেজের সামনে গতকাল দিনে-দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বেলা ১১টার ঘটনা, অথচ আজ মামলা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পদক্ষেপ জোরালো মনে হচ্ছে না।’ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার বলেন, ‘সবাইকে গ্রেপ্তার করে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে তারা জানিয়েছেন।’ তখন আদালত বলেন, ‘এ ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যতটা তৎপর হওয়া উচিৎ ছিল, তা মনে হয় হয়নি। বরগুনার পাশে সুন্দরবন ও তার পাশে কয়েকটি বর্ডার রয়েছে। আসামিরা যাতে বর্ডার ক্রস করতে না পারে, সে জন্য পুলিশের আইজিকে পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হলো। আমরা আপাতত কোনো আদেশ বা রুল জারি করছি না। তবে এ মামলায় কোনো অনিয়ম হয় কি না, তা আমারা নজরে রাখব।’

এ পর্যায়ে আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার আদালতকে বলেন, ‘এই ঘটনার পর নিহতের স্ত্রী ও স্বজনদের যেন কোনো রকম হয়রানি বা হুমকি না দেওয়া হয় সেজন্য তাদের নিরাপত্তা দিতে বলেছি।’ আদালত বলেন, ‘এ ঘটনায় আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর আরও সচেতন থাকা উচিৎ ছিল। আগামী বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) আবার এ বিষয়ে শুনানির জন্য রাখছি। ওইদিন মামলার অগ্রগতির বিষয়ে আমরা শুনানি করব।’

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2019 shawdeshnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
themebashawdesh4547877