বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০১:০১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ইসরাইলি সামরিক কমান্ড সেন্টারে হিজবুল্লাহর হামলা সুনামগঞ্জে সুরমা ব্রিজে বাস-সিএনজি সংঘর্ষ, বাউল শিল্পীসহ নিহত ২ প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্ক ও মিশিগানে ৩ বাংলাদেশী হত্যা! নিরব কেন কমিউনিটি? কেন্দ্রের নির্দেশ মানে না কেউ, এমপি-মন্ত্রীরা পাত্তা দিচ্ছেন না দলের লিখিত আদেশ কেন্দ্রের নির্দেশ মানে না কেউ, বহিষ্কারের ভয়ও করে না মাঠের বিএনপি গলায় ঢুকে গেল জীবন্ত কৈ মাছ, অতঃপর… সালাহউদ্দিনের দেশে ফেরায় বিলম্বের নেপথ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ‘না’তে আটকে যেতে পারে ফিলিস্তিনের সদস্যপদ ভারতে ৭ দফার লোকসভা নির্বাচন শুরু হচ্ছে কাল
বেগম জিয়া মুক্ত হলে মানুষ কথা বলার অধিকার ফিরে পাবে : সেলিমা রহমান

বেগম জিয়া মুক্ত হলে মানুষ কথা বলার অধিকার ফিরে পাবে : সেলিমা রহমান

স্বদেশ ডেস্ক:

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বেগম সেলিমা রহমান বলেছেন, ‘আদালতে যদি সঠিকভাবে বিচার করা হতো তাহলে আইনজীবীদের রাস্তায় নামতে হতো না। আজকে আদালত স্বাধীন না এবং সেখানে সঠিক বিচার হয় না বলেই আইনজীবীরা রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘ন্যায় বিচারের জন্য আদালত ছেড়ে যখন আইনজীবীদের রাস্তায় নেমে আসতে হয় তখন একটা স্বাধীন রাষ্ট্রের জন্য এর চেয়ে দুঃখজনক আর কিছু হতে পারে না।’

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সংসদ ভেঙে দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে ‘গণতন্ত্র ও বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি আইনজীবী আন্দোলন’র উদ্যোগে আয়োজিত এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেলিমা রহমান বলেন, ‘গণতন্ত্রের মাতা বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্যে প্রণোদিতভাবে কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে। একটা মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে অন্যায়ভাবে কারারুদ্ধ করে এদেশ লুটপাটের রাজ্যে পরিণত করছে এই ভোটারবিহীন সরকার। সরকার বেগম জিয়াকে তিলেতিলে মেরে ফেলার চেষ্টা করছে। এই সরকারের দ্বারা দেশের জনগণ আক্রান্ত হয়ে ধুকে ধুকে মরছে তাই সকলকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে এবং এই জালেম সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে।’

বেগম জিয়ার মামলার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যেখানে নিম্ন আদালত বেগম জিয়াকে ৫ বছরের সাজা দেয়- উচ্চ আদালতে সাজা কমানোর জন্য মানুষ আসে। আর সেখানে তার সাজা আরও বাড়িয়ে দেয় হলো।’

দেশের বর্তমান বিচারব্যবস্থার সমালোচনা করে বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, ‘যখন একটি দেশের আইন ও বিচারব্যবস্থা রাষ্ট্রযন্ত্রের কাছে বন্দী হয়ে যায় তখন সে দেশ ধংস হতে আর কিছু বাকি থাকে না। তাই বাংলাদেশকে এই অন্ধকার থেকে আলোতে আনতে হলে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। তাহলে আবারো দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হবে এবং মানুষ নির্বিঘ্নে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে। মানুষের কথা বলার অধিকার ফিরে আসবে।’

দেশের বর্তমান অবস্থার চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘বর্তমানে দেশে হত্যা, শিশু ধর্ষণ, দুর্নীতি মহামারী আকার ধারণ করেছে। তারা ডেঙ্গু মহামারীকে গুজব বলে উড়িয়ে দিচ্ছে।

সেলিমা রহমান বলেন, ‘সরকার যা খুশি তাই করছে কারণ তাদের কোনও জবাবদিহিতা নেই। জবাবদিহিতা থাকবেই বা কেন? তারাতো জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে সরকার গঠন করেনি তাই তারা জনগণকে থোড়াই কেয়ার করে, যা খুশি তাই করে।’

সেলিমা রহমান আরও বলেন, বন্যা, জলাবদ্ধতা, ধর্ষণ, খুন, ডেঙ্গু, চুরি-ডাকাতি, ছেলেধরা বলে গণপিটুনিতে নিরাপরাধ মানুষ হত্যা- আল্লাহ তালার গজব নেমে এসেছে এদেশের ওপর। কারণ ভোট হল মানুষের আমানত, এটা একটা পবিত্র বিষয়, আর যখন কেউ সেই পবিত্রতা নষ্ট বা জোরজবরদস্তি করে হরণ করে তখন সে দেশের উপর আল্লাহ গজবই দেন।’

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ খান, বিএনপি নেতা ইকবাল হোসেন মাহমুদ, গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়া মুক্তি আইনজীবী আন্দোলনের মহাসচিব এবিএম রফিকুল হক তালুকদার রাজা, কো চেয়ারম্যান এড. আবেদ রাজা, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এড. আনিসুর রহমান খান, সুপ্রীমকোর্ট শাখার সাধারণ সম্পাদক এড. আয়ুব আলী আশ্রাফী, ড. রফিকুল ইসলাম মেহেদী, বিকল্পধারা মহাসচিব এড. শাহ আহম্মেদ বাদল, গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়া মুক্তি আইনজীবী আন্দোলনের কো চেয়ারম্যান মো. শহীদুল ইসলাম, ডা. ওয়াছিল উদ্দিন বাবু, নাজমুল হাসান, কামাল হোসেন, মনির হোসেন, সাবেক জজ শামসুল আলম, মোস্তফা কামাল, ব্যারিস্টার মারিয়াম খন্দকার, ইসমাইল হোসেন, নাসির উদ্দিন খান সম্রাট, ময়মনসিংহ বারের আহ্বায়ক সৈয়দ এনায়েত উর রহমান, সদস্য সচিব আতাহার হোসেন চৌধুরী সবুজ ও আনোয়ারুল কাদির দুলাল, আজমেরী বেগম ছন্দা প্রমুখ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2019 shawdeshnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
themebashawdesh4547877