মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন

টাইগারদের সামনে দুই ‘কোয়ার্টার ফাইনাল’

টাইগারদের সামনে দুই ‘কোয়ার্টার ফাইনাল’

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশের সামনে দুটি ‘কোয়ার্টার ফাইনাল’ ম্যাচ। প্রতিপক্ষ ভারত ও পাকিস্তান। বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে যেতে হলে এ দুই ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই। ভারত-চ্যালেঞ্জ জয়ের সঙ্গে পাকিস্তান-জুজু কাটিয়ে উঠতে হবে। বিশ্বকাপে যে ব্র্যান্ডের ক্রিকেট খেলছে টাইগাররা, তাতে ভালো কিছ্রু আশা। টুর্নামেন্টের শুরুর ম্যাচ থেকেই বিশ্বমানের ব্যাটিং উপহার দিচ্ছে বাংলাদেশ। ব্যাটিং লাইনআপের ভয়ঙ্কর সুন্দর নেতৃত্ব দিচ্ছেন সাকিব আল হাসান।

সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানদের টেক্কা দিয়ে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় শক্ত অবস্থান করে নিয়েছেন। ৬ ম্যাচে তার সংগ্রহ ৪৭৬ রান। দুটি সেঞ্চুরি ও তিনটি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস রয়েছে। টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরির রেকর্ডও গড়েছেন। কীর্তিমান সাকিবই পথ দেখাচ্ছেন বাংলাদেশকে। শুধু অবিশ্বাস্য ব্যাটিংই নয়, বোলিংয়েও ‘ম্যাজিক্যাল ম্যান’ সাকিব।

৬ ম্যাচে ১০ উইকেট শিকার করেছেন। এক ম্যাচে ৫ উইকেট শিকারের দৃষ্টান্তও রয়েছে। দুই বিভাগে নৈপুণ্য দেখানো এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে ঘিরে সামনের মহাগুরুত্বপূর্ণ দুই ম্যাচে বড় স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। ‘কোয়ার্টার ফাইনাল’-এ রূপ নেওয়া সামনের দুই ম্যাচে সাকিবের দিকে তাকিয়ে থাকবেন সবাই। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বিশ্ব চষে বেড়ান বাংলাদেশের এই পোস্টার বয়। উপমহাদেশের খেলোয়াড়দের সম্পর্কে তার চেয়ে ভালো ধারণা আর কে রাখতে পারে? অভিজ্ঞ সাকিবই সেমিফাইনালের পথে এগিয়ে যাওয়ার মহানায়ক হতে পারেন। বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের অন্যতম বড় স্তম্ভ মুশফিকুর রহিম। তার ব্যাটও কথা বলছে। বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরি পেয়েছেন।

এ পর্যন্ত দলের বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে মুশফিকের ব্যাট থেকেই সর্বোচ্চ ৩২৭ রান এসেছে। আত্মবিশ্বাসে তুঙ্গে থাকা মুশফিকও হতে পারেন দলের দিশারি। ভারত ও পাকিস্তানের বৈচিত্র্য বোলিংয়ের সামনে দেয়াল হয়েই দাঁড়াতে পারেন। এ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানকে ঘিরেও প্রত্যাশার বেলুন ফুলছে। গত ম্যাচগুলোয় তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কাছ থেকে মনের মতো ব্যাটিং দেখতে না পেলেও আশায় বুক বাঁধছেন সমর্থকরা। তরুণদের মধ্যে আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন সৌম্য সরকার ও লিটন দাস।

তারাও যে ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দেওয়ার সামর্থ্য রাখেন- এমন দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন। ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত বাংলাদেশ। তিনশ’র বেশি রান তাড়া করে জিততে এত কাঠ-খড় পোড়াতে হয় না। তবে বোলিং নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকছেই। ইংল্যান্ডের মাটিতে জ্বলবেন পেসাররা-কিন্তু প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স উপহার দিতে পারছেন না তারা। মোস্তাফিজুর রহমান ১০ উইকেট শিকার করলেও ৬ ম্যাচে ৫২.১ ওভারে রান দিয়েছেন সাড়ে তিনশ’। তার চেয়ে উজ্জ্বল পেস অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিন। ৫ ম্যাচে ৪২ ওভারে ২৮১ রান দিয়ে ১০টি করে উইকেট করে দলের সেরা বোলার এখন তিনিই।

অভিজ্ঞ মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা বোলিংয়ে প্রত্যাশার প্রাপ্তি নেই। তাই পেস বোলিংয়ে তরুণদের ঘিরেই আশা। স্পিনে কার্যকরি ভূমিকা রাখতে পারেন সাকিব ও মিরাজ। ব্যাটিং ও বোলিংয়ের পাশাপাশি ফিল্ডিংও গুরুত্বপূর্ণ। আগের ম্যাচগুলোয় অনেক ক্যাচ মিস দলকে পুড়িয়েছে। সামনের দুই ম্যাচে সফল হতে হলে অভিজ্ঞ ও তরুণদের সমন্বয়ে সেরা পারফরম্যান্স উপহার দিতে হবে বাংলাদেশকে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2019 shawdeshnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
themebashawdesh4547877