রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০৭:৪০ পূর্বাহ্ন

খালেদা জিয়ার নাইকো মামলার পরবর্তী শুনানি ১৪ জুলাই

খালেদা জিয়ার নাইকো মামলার পরবর্তী শুনানি ১৪ জুলাই

স্বদেশ ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ফের পিছিয়েছে। খালেদা জিয়া অসুস্থ হয়ে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় আগামী ১৪ জুলাই এ মামলার শুনানির নতুন তারিখ ঠিক করেছেন আদালত।

রোববার সকালে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের ২নং ভবনে স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ জজ-৯-এর বিচারক শেখ হাফিজুর রহমান এ আদেশ দেন।

রোববার ছিল মামলাটির অভিযোগ গঠনের শুনানির নির্ধারিত দিন। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় কারা কর্তৃপক্ষ তাকে আদালতে হাজির করেনি।

শুনানিতে মাসুদ আহমেদ তালুকদার, হান্নান ভূঁইয়া, আক্তারুজ্জামানসহ খালেদা জিয়ার পক্ষের আইনজীবীরা আদালতে বলেন, চিকিৎসাধীন থাকায় আসামি খালেদা জিয়াকে আনা হয়নি। আসামির অনুপস্থিতিতে অভিযোগ গঠনের শুনানি আইনসম্মত হয় না। এজন্য শুনানি পেছানোর জন্য সময়ের আবেদন জানান তারা।

শুনানি শেষে বিচারক সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে পরবর্তী অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য আগামী ১৪ জুলাই দিন ঠিক করেন।

উল্লেখ্য, কানাডার কোম্পানি নাইকোর সঙ্গে অস্বচ্ছ চুক্তির মাধ্যমে রাষ্ট্রের আর্থিক ক্ষতি ও দুর্নীতির অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে তেজগাঁও থানায় মামলাটি দায়ের করে দুদক। পরের বছরের ৫ মে ওই মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন দুদকের সহকারী পরিচালক এস এম সাহেদুর রহমান। অভিযোগপত্রে প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার রাষ্ট্রীয় ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়।

এরপর ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজল আদালতে খালেদা জিয়াসহ মামলার ১১ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আবেদন জানান।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন, তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলাম, সাবেক সিনিয়র সহকারী সচিব সি এম ইউছুফ হোসাইন, বাপেক্সের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মীর ময়নুল হক, বাপেক্সের সাবেক সচিব মো. শফিউর রহমান, ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুন, বাগেরহাটের সাবেক সংসদ সদস্য এমএএইচ সেলিম এবং নাইকোর দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট কাশেম শরীফ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2019 shawdeshnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
themebashawdesh4547877