শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১২:৫২ অপরাহ্ন

ভিয়েতনামের হ্যাকারদের কবলে বাংলাদেশের ফেসবুক আইডি!

ভিয়েতনামের হ্যাকারদের কবলে বাংলাদেশের ফেসবুক আইডি!

স্বদেশ ডেস্ক: দেশীয় বিভিন্ন স্প্যামিং ও হ্যাকিং টিম দ্বারা বিভিন্নভাবে আইডি হারানো ও ক্ষতিগ্রস্ত হবার সঙ্গে সঙ্গে এখন যুক্ত হয়েছে ভিয়েতনামের হ্যাকারদের আক্রমণ। বেশ কিছুদিন ধরে ভিয়েতনামের বিভিন্ন স্প্যামার এবং ছোট ছোট হ্যাকার টিমগুলো বাংলাদেশি আইডিগুলোর সিকিউরিটি জনিত দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে আইডিগুলো সম্পূর্ণভাবে তাদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিচ্ছে। আর আইডিগুলোর অ্যাক্সেস নিতে না পারলে ডিজেবল করে দিচ্ছে। ঘটনার নেপথ্য নিয়ে যুগান্তরের সঙ্গে কথা বলেছেন ক্রাফের সভাপতি জেনিফার আলম।

কিভাবে হ্যাক হচ্ছে?

প্রথমত ভিয়েতনামের হ্যাকাররা ২০১৩ সাল বা তার আগে খোলা ইয়াহু মেইল। হটমেইল, আউটলুক মেইলগুলো হ্যাক করছে। এই মেইলগুলোর ইউজাররা সাধারণত অনেকদিন যাবত মেইলে লগইন করেন না। দ্বিতীয়ত হ্যাকাররা ওই সব হ্যাক করা মেইলে থাকা ফেসবুক আইডি পেলে সেগুলো বিক্রি করে দিচ্ছে দেশেরই নরমাল ইউজারদের কাছে।

কেন হ্যাক হচ্ছে?

ভিয়েতনামের হ্যাকারদের বাংলাদেশী ফেসবুক আইডি হ্যাক করার প্রাথমিক কারণ হিসাবে ধরা হচ্ছে ফেসবুকের পুরাতন আইডির ওপর তাদের বিশেষ আকর্ষণ। উল্লেখ্য যে তারা শুধুমাত্র পুরাতন আইডিগুলোই বেশি হ্যাক করছে যেসব আইডিগুলোর বয়স ৫ বছর বা তার বেশি। তারা এই আইডিগুলো নিজেদের দেশের সাধারণ ইউজারদের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে এবং সাধারণ ইউজাররা সেগুলো কিনে নিয়ে নিজেরা ব্যবহার করছে।

হ্যাকারদের টার্গেট কারা?

ভিয়েতনামের হ্যাকারদের টার্গেট শুধুমাত্র পুরাতন ফেসবুক আইডিগুলোই।

হ্যাক রোধের উপায় কি?

যেহেতু তারা প্রথমে মেইল হ্যাক করে সেটা দিয়ে ফেসবুক আইডি হ্যাক করছে; সেহেতু তাদের থেকে আইডি সুরক্ষিত রাখতে হলে প্রথমেই নিজের ইমেইল সিকিউর আছে কিনা সেই ব্যাপারে সতর্ক হতে হবে।

শুধুমাত্র সেসব মেইলগুলোই হ্যাক হচ্ছে যেগুলো কিনা অনেক পুরনো এবং সেই ইমেইলগুলোতে ইউজাররা লগইন করেন না বা সেই ইমেইলের পাসওয়ার্ড ইউজাররা জানেন না। এবং ফেসবুকের সকল সিকিউরিটি অপশন যথাযথভাবে অন করা নাই।

এছাড়া আমাদের দেশের ইউজাররা ইদানীং ফেসবুকের সিকিউরিটি বৃদ্ধির দিকে মনোযোগ দিলেও, ইমেইল সিকিউরিটির বিষয়টি এড়িয়ে যান, যা পরবর্তীতে আইডিকে হুমকির মধ্যে ফেলে দেয়।

এ বিষয়ে ক্রাফের টেকনিক্যাল টিমের সফিকুল ইসলাম বলেন, যারা ইয়াহু, হটমেইল, আউটলুক মেইল ইউজ করেন তারা দ্রুত মেইলের সকল সিকিউরিটি ফিচারগুলো অন করে নিন। মেইলের পাসওয়ার্ড অবশ্যই পরিবর্তন করবেন।

আর যদি পাসওয়ার্ড ভুলে যাওয়া মেইলের পাসওয়ার্ড রিকোভারের কোন সুযোগ না থাকে তাহলে অতি দ্রুত আপনার ফেসবুক আইডি থেকে সেই মেইল রিমুভ করে দিয়ে নতুন মেইল এড করবেন। অন্যথায় হতে পারে আপনার আইডিও ভিয়েতনামের হ্যাকারদের কবলে চলে যাবে।

মো. আবু তাহের দেওয়ান। দায়িত্বরত আছেন নরসিংদী জেলার মাধবধী থানার ওসি হিসাবে। গত ৩ জুন হুট করেই তার ফেসবুক আইডিটি লগআউট হয়ে যায়। তিনি আর তার আইডিতে প্রবেশ করতে পারেননি। অতঃপর তিনি যোগাযোগ করেন ক্রাফের সভাপতি জেনিফার আলমের সঙ্গে।

তখন ক্রাফের টেকনিকাল টিম আবু তাহের দেওয়ানের আইডিটি রিকভারের দায়িত্ব নেয়। তারা দেখতে পায় আইডিটি হ্যাক করা হয়েছে ওসি সাহেবের অনেক পুরাতন মেইল হ্যাক করে; যেটা কিনা তার ফেসবুক আইডিতে ছিলো। হ্যাক করেছে বিদেশী কোন হ্যাকার।

ক্রাফের টেকনিক্যাল টিম যখন আইডিটি রিকভারের কাজ শুরু করে তখন প্রায় ২৪ ঘণ্টা পার হয়ে যায়। হ্যাকাররা ততক্ষণে আইডির নাম পরিবর্তন করে ফেলেছে। যেটা কিনা ইন্দোনেশিয়ান একটি নাম ছিলো।

তারপর টানা দুইদিন চেষ্টা করার পর আইডিটি রিকভার করতে সচেষ্ট হয় ক্রাফ টিম। আইডিটি রিকভারের পর দেখা যায় আইডিটি হ্যাক করা হয়েছিলো ভিয়েতনামের একটি আইপি থেকে এবং সেটা চালানো হয়েছে ইন্দোনেশিয়া থেকে।

আইডিটি রিকভারের পর মাধবদী থানার ওসি জেনিফার আলম এবং সফিকুল ইসলামকে ধন্যবাদ দিয়ে একটি পোস্ট করেন তার নিজের ফিরে পাওয়া আইডিতে।

এই বিষয়ে ক্রাফের সভাপতি জেনিফার আলম বলেন- বেশ কিছুদিন ধরেই আমরা এই ভিয়েতনাম কেন্দ্রিক বিভিন্ন টিম এবং ব্যক্তিগতভাবে বাংলাদেশি আইডি, আইডিতে যুক্ত থাকা পেজ ও গ্রুপ নিয়ন্ত্রণ নিতে দেখছি এবং এ সংক্রান্ত অনেকগুলো অভিযোগ ও টেকনিক্যাল সেবার জন্য আমাদেরকে অনেকেই নক করেছেন।

তবে সবচেয়ে খারাপ খবর এটা যে একবার এদের হাতে আইডি চলে গেলে সেটা রিকভারের চান্স খুবই কম। কারণ মেইলের অ্যাক্সেস নেবার মাধ্যমে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তারা আইডিগুলোর অ্যাক্সেস নিচ্ছে। তাই আইডিগুলো ফিরিয়ে আনা কষ্টসাধ্য।

তিনি বলেন, আমাদের ক্রাফে এই ধরনের আক্রমণে টেকনিক্যাল সেবার জন্য আসা আইডিগুলোর মধ্যে আমরা অর্ধেক মাত্র রিকভার করে আসল ইউজারকে ফিরিয়ে দিতে পেরেছি। তাই নিজের মেইল এবং একাউন্টের সকল সিকিউরিটি ফিচারগুলো অন করে রাখার পাশাপাশি নিয়মিত চেক করার পরামর্শ দেন জেনিফার আলম।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2019 shawdeshnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
themebashawdesh4547877