শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১০:১১ পূর্বাহ্ন

কী বলছেন তাঁরা

১৯৭৮ থেকে ২০১৮ ভারত-পাকিস্তান ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে মোট ১৩১ বার। তাতে পাকিস্তানের জয়ের পাল্লা ভারী। ৭৩ জয়ের বিপরীতে তারা হেরেছে ৫৪ ম্যাচ। এ তো গেল দুদলের মধ্যেকার ওয়ানডে পরিসংখ্যান।

এবার জেনে নিন, বিশ্বকাপে কে কতবার জিতেছে। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে সব সময় টানটান উত্তেজনা কাজ করে। এ দুদলের মহারণ মানেই বাড়তি উত্তাপ। তবে সত্যটা হলো এই যে, ক্রিকেটের মহাযজ্ঞে কখনই ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। আগের ৬ সাক্ষাতেই জয়ীর বেশে মাঠ ছেড়েছে ভারত। আজ আবার এশিয়ার এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশ মুখোমুখি হবে।

advertisement
যদিও ২০১৯ বিশ্বকাপের এই ম্যাচে বাগড়া দিতে পারে বৃষ্টি। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, বৃষ্টিতে ভেস্তে যেতে পারে ম্যানচেস্টারে ভারত-পাক মহারণ। তবে বৃষ্টির কথা ভেবে বসে থাকলে তো চলবে না, দুদলের খেলোয়াড়রা তাই বসে নেই। প্রতিপক্ষকে আটকাতে ছক কষছেন কোহলি-সরফরাজরা। ভারতকে অবশ্য জয়ের টোটকা বাতলে দিয়েছেন কপিল দেব, শচিন টেন্ডুলকার ও হরভজন সিং। কী বলছেন তারা!

কপিল দেব মনে করেন, এই পাকিস্তান দলকে দশবারের মধ্যে সাতবারই হারিয়ে দেবে কোহলির দল। তিনি বলেছেন, আমাদের সময়ে যে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে হয়েছিল, তা অনেক ভালো এবং শক্তিশালী ছিল। আজকের এই পাকিস্তান দল সম্পর্কে আমি বলতে পারি, দশবার ম্যাচ হলে ভারত সাতবার জিতবে। আমি বলব, পাকিস্তানের চেয়ে অবশ্যই ভারত অনেক ভালো দল। তিনি আরও বলেন, গত পনেরো বছরের ভারতীয় ক্রিকেটে এই প্রথমবার পেসাররাই দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এটা ভালো দিক। কেননা সবাই জানেন, বোলাররাই ম্যাচ জিতিয়ে থাকেন। বিরাট কোহলি প্রসঙ্গে বলেছেন, বিশ্বের এক নম্বর ক্রিকেটারের নাম বিরাট কোহলি।

শচিন টেন্ডুলকারের পরামর্শ, বাড়তি রক্ষণাত্মক হওয়ার দরকার নেই; বরং সুযোগ পেলেই পাক পেসার আমিরকে আক্রমণ করতে হবে। তিনি বলেন, ও বিশ্বকাপে ভালো বল করছে। তবে আমি বলব, আমিরকে নিয়ে বাড়তি সতর্ক হওয়ার প্রয়োজন নেই। সুযোগ পেলেই আক্রমণ করতে হবে। পিছিয়ে যাওয়া ঠিক হবে না কোহলিদের। শচিন টেন্ডুলকার জানান, কখনই নেতিবাচক মানসিকতা নিয়ে মাঠে নামা ঠিক হবে না। তিনি মনে করেন, এ ম্যাচে রোহিত ও বিরাটকে লম্বা ইনিংস খেলতে হবে।

ম্যানচেস্টারে বিশ্বকাপের হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগে কোহলিদের সতর্ক করে দিলেন হরভজন সিং। ২০১১ সালের সেমিফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি হয়েছিলেন এই স্পিনার। আট বছর আগের সেই ম্যাচ প্রসঙ্গে হরভজন বলেছেন, প্রচণ্ড টেনশনে ছিলাম। রাতে ঘুম হয়নি। ২০১৯ বিশ্বকাপে আজ ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হবে। হরভজন বলেন, চাপমুক্তভাবে খেলতে হবে। দর্শকদের প্রত্যাশা অনেক বেশি থাকবে। হারলে বাড়িতে ঢিলও পড়তে পারে। তবে এসব নিয়ে ভাবলে চলবে না।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2019 shawdeshnews.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
themebashawdesh4547877